Ultimate magazine theme for WordPress.

করোনা মোকাবেলায় পর্যটন শিল্প বিপ্লব ঘটাতে পারেঃ

0
৯৯ Views

মোঃ মঞ্জুর হোসেন ঈশা

বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার সমিতির চেয়ারম্যান মোঃ মঞ্জুর হোসেন ঈসা বলেন, সারা বিশ্বের করোনা মোকাবেলায় বিশ্বের শীর্ষ নেতৃত্ব অনেক গবেষণা করছেন। বাংলাদেশের করোনার কারণে লক্ষ লক্ষ মানুষ বেকার হয়ে পড়েছেন। এখান থেকে ঘুড়ে দাঁড়ানোর জন্য
পর্যটন শিল্প গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ও অবদান রাখতে পারে। এই শিল্পে পরিকল্পনা করে অগ্রসর হলে লক্ষ লক্ষ বেকার নতুন করে কর্ম সংস্থান পেতে পারে।

আজ শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর দুপুরে ঝাউচর বালুরমাঠ,হাজারীবাগ (বেড়িবাঁধ শিকদার মেডিকেল সংলগ্ন) বিশ্ব পর্যটন দিবস ২০২০ উপলক্ষে আলোচনা সভা ও পথশিশুদের মাঝে খাবার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। (তিনি আরো বলেন, বিশ্ব পর্যটন সংস্থার মূল উদ্দশ্য টেকসই পর্যটন উন্নয়নের মাধ্যমে সদস্য দেশসমূহের মধ্যে সমঝোতা ও শান্তি সৃষ্টি করে অর্থনৈতিক, সামাজিক, পরিবেশগত এবং সাংস্কৃতিক সমৃদ্ধি আনায়ন করা। দিবসটি পালনের মাধ্যমে বিশ্ববাসীর মধ্যে শান্তি, সমৃদ্ধি, সৌহার্দ্য, সম্প্রীতি এবং ভ্রাতৃত্ব বোধ তৈরি করে। সচেতনতা সৃষ্টিতেও পর্যটন দিবস ভূমিকা রাখে।
তারা বলেন, পর্যটন একটি বহুমুখী শিল্প। প্রায় ৭০ ধরনের প্রতিষ্ঠান সরাসরি পর্যটকদের সেবা দিয়ে থাকে। এগুলোর মধ্যে দু’চারটি ছাড়া বাকি সবগুলো প্রতিষ্ঠানই ছোট আয়তনের এবং স্বল্পপূঁজির। ফলে এদের পক্ষে গণমাধ্যমে প্রমোশন কার্যক্রম চালানোর ব্যয়ভার বহন করা সম্ভব হয় না। ডিজিটাল পদ্ধতির প্রবর্তন এসব প্রতিষ্ঠানের প্রমোশন কার্যক্রমকে সহজ করেছে)।

অন্যান্য বক্তারা বলেন, ‘বিশ্ব পর্যটন দিবস’ এলে প্রতি বছরই ঘটা করে দিবসটি পালন করা হয়। তবে হাতে গোনা কিছু প্রতিষ্ঠান ও মানুষ ঘুরে ফিরে প্রতি বছর দিবসটি পালন করে থাকে। এতে করে জনগণের স্বতস্ফুর্ত অংশগ্রহণ নিশ্চিত হচ্ছে না। একথা মনে রাখতে হবে যে, প্রতি বছর পর্যটন দিবস পালন করলেই যে পর্যটনের উন্নতি সাধিত হয় এমন নয়। এজন্য প্রয়োজন দিবসটির চেতনার মধ্যদিয়ে বাংলাদেশের পর্যটন শিল্প বিকাশে নতুন উদ্দীপনা সঞ্চারিত করা। সেই সাথে বাংলাদেশের ইতিবাচক ভাবমূর্তি সৃষ্টির প্রতিও যথাযথ গুরুত্ব দিতে হবে।
শেরে বাংলা পথকলি স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও শেরে-বাংলা এ কে ফজলুল হক গবেষণা পরিষদের মহাসচিব মোঃ আর কে রিপনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, বিশিষ্ট সমাজসেবক ও এস বি সি ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক কাজী আনিসুজ্জামান আরজু , ৭১ মিডিয়া ভিশনের ভাইস চেয়ারম্যান ও শেরেবাংলা পথকলি স্কুলের উপদেষ্টা কে এম রেজাউল করিম হাবিব , বিশিষ্ট সংগঠক,সমাজসেবক ও দৈনিক আমার বার্তা ব্যবস্থাপনা সম্পাদক মেনন চৌধুরী, বিশিষ্ট সংগঠক মঈনুর রশিদ চৌধুরী, ইবাইস ইউনিভার্সিটির শিক্ষক মোতালেব হোসেন অপু, ফিরোজ আলম, আকলিমা রশিদ চৌধুরী প্রমুখ।
অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন মডেল ও অভিনেত্রী সানজিদা রোজ।
ইবাইস ইউনিভার্সিটি উপাচার্য অধ্যাপক মোহাম্মদ আহসান উল্লাহ এর উদ্যোগে পথশিশুদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।

বিশেষ দোয়া ও মোনাজাতে করোনায় যারা নিহত হয়েছেন তাদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.