Ultimate magazine theme for WordPress.

পটিয়ায় যুবলীগ বিলুপ্ত ৪  ইউনিয়ন কমিটি পুনরায় বহাল  

0
১০১ Views

 

সেলিম  চৌধুরী  স্টাফ  রিপোর্টারঃ– চট্টগ্রামের

পটিয়ায় উপজেলা যুবলীগ কর্তৃক বিলুপ্ত চার ইউনিয়ন যুবলীগের কমিটি পুনরায় বহালের আদেশ দিয়েছেন দক্ষিণ জেলা যুবলীগ। দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক পার্থ সারথী চৌধুরী উপজেলা যুবলীগের আহব্বায়ক হাসান উল্লাহ চৌধুরী, যুগ্ম আহব্বায়ক ইমরান উদ্দিন বশির ও যুগ্ম আহব্বায়ক রিটন নাথকে এক চিঠির মাধ্যমে গত ২৩ সেপ্টেম্বর এ নির্দেশনা প্রদান করেন। তবে উপজেলা যুবলীগ জেলা যুবলীগ প্রদত্ত এ ধরনের কোন নির্দেশনা পত্র পাননি বলে জানান।

এর আগে গত ২ সেপ্টেম্বর উপজেলার খরনা ইউপি যুবলীগ সভাপতি বাপ্পী চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক নুরুল আলম, জিরি ইউপি যুবলীগ সভাপতি জসিম উদ্দিন বাবু ও সাধারণ সম্পাদক মেজবাহ উদ্দিন সোহেল, আশিয়া ইউপি যুবলীগ সভাপতি মো. আলমগীর ও সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল আলম এবং দক্ষিণ ভূর্ষি ইউপি যুবলীগের আহব্বায়ক আহমদ নূর ও যুগ্ম আহব্বায়কের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে উপজেলা যুবলীগ।

একই সাথে উপজেলা যুবলীগের পক্ষ থেকে একটি করে সম্মেলন প্রস্তুতির জন্য আহŸায়ক কমিটিরও ঘোষণা দেয়া হয়। কিন্তু নতুন করে দক্ষিণ জেলা যুবলীগ আগের কমিটি বহালের আদেশ দেয়ায় ওই চার ইউনিয়নে গ্রূপিং দেখা দিয়েছে।

এর জেরে গতকাল শুক্রবার একই স্থানে আশিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের দুটি পক্ষ মতবিনিময় সভার ডাক দেয়। পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিনকে উপলক্ষ করে উভয় পক্ষ মতবিনিময় সভা স্থগিত করে পৃথক স্থানে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন।

জানা গেছে, সম্প্রতি চার ইউনিয়ন কমিটি বিলুপ্ত করে উপজেলা যুবলীগের পক্ষ থেকে সম্মেলন প্রস্তুতির জন্য চারটি আহব্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়। নতুন কমিটির খরনা ইউপিতে আহব্বায়কের দায়িত্ব দেয়া হয় মিঠুন চক্রবর্ত্তীকে। জিরি ইউনিয়নে আহব্বায়কের দায়িত্ব দেয়া হয় শাহ আজিজকে। আশিয়া ইউনিয়নে আহব্বায়কের দায়িত্ব দেয়া হয় মোহাম্মদ হোসেনকে। আর দক্ষিণ ভূর্ষি ইউনিয়নে আহব্বায়কের দায়িত্ব দেয়া হয় মোহাম্মদ মোরশেদুল আলমকে।

এদিকে খরনা ইউনিয়ন যুবলীগের বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি বাপ্পী চৌধুরী দক্ষিণ জেলা যুবলীগ ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের কাছে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেন। তাতে সংগঠনের গঠনতন্ত্র না মানার অভিযোগ আনা হয়। এরপর অভিযোগের প্রেক্ষিতে পটিয়া উপজেলা যুবলীগের কমিটির কাছ থেকে কমিটি বিলুপ্ত করার বিষয়টি জানতে বলা হয়।

উপজেলা যুবলীগের বর্তমান কমিটির আহব্বায়ক হাসান উল্লাহ চৌধুরী, যুগ্ম আহব্বায়ক ইমরান উদ্দিন বশির, যুগ্ম আহব্বায়ক মাস্টার রিটন নাথ। উপজেলার ১৭ ইউনিয়নে কমিটি রয়েছে। সাংগঠনিকভাবে উপজেলার আশিয়া, খরনা, জিরি ও দক্ষিণ ভূর্ষি ইউনিয়ন যুবলীগ সক্রিয় না থাকাসহ বিভিন্ন অভিযোগে কমিটি বিলুপ্ত করে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। এর মধ্যে খরনা ইউপি যুবলীগের সভাপতি বাপ্পী চৌধুরীর বিরুদ্ধে আর্থিক লেনদেনের অভিযোগ করে উপজেলা যুবলীগ।

‘সদ্য বিলুপ্ত’ খরনা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি বাপ্পী চৌধুরী জানান, গঠনতন্ত্র না মেনে খরনাসহ চার ইউনিয়ন যুবলীগের কমিটি ভেঙে দেওয়া হয়েছে। যার কারণে জেলা ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের কাছে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। বেআইনিভাবে কমিটি বিলুপ্ত করার বিষয়টি প্রমাণ পাওয়ায় দক্ষিণ জেলা যুবলীগ চার কমিটি পুনরায় বহাল রাখেন। সাংগঠনিকভাবে দুর্বল করতে না পেরে আমার ব্যবসায়ীক লেনদেনের বিষয় নিয়ে বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রচার করা হচ্ছে। জেলা কমিটির আদেশে আমরা সাংগঠনিক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। উপজেলা যুবলীগ থেকে যেসব আহব্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছিল, তারা মিলেমিশে কাজ করতে চাইলে আমাদের আপত্তি নেই। সকলে একসাথে কাজ করতে চাই।

এ বিষয়ে কথা বলতে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহব্বায়ক ইমরান উদ্দিন বশিরের মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন দেয়া হয়। কিন্তু তিনি ফোন রিসিভ না করায় এ বিষয়ে বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।

উপজেলা যুবলীগের আহব্বায়ক হাসান উল্লাহ চৌধুরী জানান, সাংগঠনিক কাজে কোন ধরনের সম্পৃক্ত না থাকা এবং বিভিন্ন অভিযোগের প্রেক্ষিতে খরনাসহ চার কমিটি বিলুপ্ত করা হয়। সেখানে আহব্বায়ক কমিটিগুলো কাজ শুরু করেছে। বিলুপ্ত কমিটি পুনরায় বহাল রাখতে দক্ষিণ জেলা যুবলীগের কোন চিঠি উপজেলা যুবলীগ পায়নি।

তিনি বলেন, জেলা যুবলীগের নির্দেশনা পেলে উপজেলা যুবলীগ নেতৃবৃন্দ এক সাথে বসে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেব।

 

 

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.