Ultimate magazine theme for WordPress.

অহনার মস্তিষ্কে ইনফেকশন-চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন ৫ লাখ টাকা।

0
২৪৯ Views

মো: ইয়াছিন আলী শেখ ঈশ্বরদী পাবনা প্রতিনিধি :

মানুষ মানুষের জন্য-জীবন-জীবনের জন্য কথাটা তখনি সত্য হয় যখন একজন মানুষ অন্য একজন মানুষের বিপদে পাশে দাড়ায়। আসুন এই ফুটফুটে শিশুটির জীবন বাঁচাতে সবাই এগিয়ে আসি।মায়ের কুলে ফিরিয়ে দেয় হাসিমাখা তার সন্তানকে।

মাত্র ১০ বছর বয়সেই তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী জান্নাতুল অহনা হাসপাতালে শয্যাশায়ী। মাথার যন্ত্রনায় ছটফট করায় গরীব মা মেয়েকে রাজশাহী নিয়ে যায় চিকিৎসার জন্য। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক পরীক্ষা করার পর জানায় অহনার ব্রেনে ইনফেকশন হয়েছে। পানি জমে আছে। অপারেশনসহ চিকিৎসা খরচের জন্য ৫ লাখ টাকার প্রয়োজন।

জান্নাতুল অহনার বাড়ি উপজেলার পাকশী ইউনিয়নের যুক্তিতলা গ্রামের বড় মসজিদেও পাশে। তার বাবা বফা অনেক আগেই মারা গেছেন। এতিম অহনার মা মমতাজ বেগম অন্যের বাড়ি কাজ করে কোনো রকম দিনযাপন করেন। স্বামী হারানো মমতাজ বেগম মেয়ের দুরারোগ্য অসুখের কথা শুনে পাগল প্রায়। মেয়ের চিকিৎসার টাকা কিভাবে যোগাড় করবেন তা নিয়ে চিন্তিত। নিরুপায় হয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন আর্থিক সহযোগিতা পাওয়ার আশায়।

অহনাকে সুস্থ করার প্রত্যয়ে চিকিৎসার অর্থ সংগ্রহের জন্য এগিয়ে আসা অহনার প্রতিবেশি ও ঈশ্বরদী সরকারি কলেজের বাণিজ্য বিভাগের দুজন ছাত্রী উর্বশী আলম ও ফাহমিদা ফাতেমা বিশেষ ভূমিকা পালন করছেন। তারা বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের কাছে যাচ্ছেন এবং অহনার বিষয়টি তাদের কাছে তুলে ধরছেন।

উর্বশী আলম অহনার চিকিৎসার অর্থ সংগ্রহে এগিয়ে আসার বিষয়ে বলেন, একজন মানুষ হিসেবে আরেকজন অসহায় অসুস্থ মানুষের পাশে দাঁড়ানো কর্তব্য মনে করে আমরা অহনার চিকিৎসার অর্থ সংগ্রহ শুরু করেছি। কেননা মেয়েটির বাবা নেই, মা স্বামী হারা অন্যের বাড়িতে কাজ করে দিনযাপন করেন। তার পক্ষে অসুস্থ মেয়ের ব্যয়বহুল চিকিৎসা বাবদ ৫ লাখ টাকা যোগান দেওয়া সম্ভব নয়। এটা জেনে আমরা সমাজের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের কাছে যাচ্ছি মেয়েটির চিকিৎসার অর্থ সংগ্রহের জন্য। ভালো সাড়াও পাচ্ছি। অহনার চিকিৎসার জন্য তিনি সমাজের বিত্তবানসহ সকলকে সহযোগিতার হাত বাড়ানোর আহবান জানান। কেউ চাইলে বিকাশে টাকা পাঠিয়ে সহযোগিতা করতে পারেন। বিকাশ নম্বর : ০১৩১৬০১১২৮৮, ০১৭৫৪০৩৬৬৪২।

Leave A Reply

Your email address will not be published.