Ultimate magazine theme for WordPress.

ঈদগাঁও থানার কার্যক্রম জোড়া খুনের মামলা দিয়ে শুরু।

0
২৫৫ Views

মোঃ কাউছার ঊদ্দীন শরীফ, ঈদগাঁওঃ

কক্সবাজার সদর উপজেলা ইসলামাবাদ ইউনিয়ন নতুন ঈদগাঁও থানায় প্রথম মামলা হিসেবে জোড়া খুনের মামলা রেকর্ড করা হয়েছে।২২ জানুয়ারী প্রথম জোড়া খুনের মামলা রেকর্ড করেন নতুন ওসি মোঃ আবদুল হালিম।

জানা যায়, কক্সবাজার সদর উপজেলা ইসলামাবাদ ইউনিয়ন ৩নং ওয়ার্ড চরপাড়া এলাকার বাসিন্দারা মোঃ আজিজুল হক বাদি হয়ে চার জন কে আসামী করে জোড়া খুনের মামলা দায়ের করেন। উক্ত মামলার আসামীরা হলেন একই এলাকার মৃত জাফর আলমের দুই ছেলে মোঃ আবুল কালাম(৩৬) আবু তাহের (৩৮)এবং আবুল কালামের স্ত্রী হামিদা বেগম (৩২) ও আবু তাহের স্ত্রী মনোয়ার বেগম (৩৫)।গত ১৯ জানুয়ারী বর্ণিত ইউনিয়নের চর পাড়া এলাকার আবুল কালামের সাথে দীর্ঘ দিন ধরে জায়গা জমির বিরোধ চলে আসছে তার আপন চাচা আজিজুল হকের । ঘটনার দিন সকালে আজিজুল হক বিরোধীয় জায়গায় ঘেরা দেয় । একই দিন সন্ধ্যা ৭ টায় আবুল কালাম লম্বা কিরিচ দিয়ে ঘেরা কাটতে শুরু করলে আজিজুল হকের স্ত্রী রাশেদা বেগম ( ৪০) ও মেয়ে জান্নাতূল ফেরদৌস (১৩) এগিয়ে আসলে আবুল কালাম মা -মেয়ে দুইজনকে জবাই করে খুন করে।ঘটনার পরদিন ২০ জানুয়ারী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল কক্সবাজার জেলার ৯ম থানা হিসেবে ঈদগাঁও থানার উদ্বোধন করেন। আলোচিত এ খুনের ঘটনার মধ্য দিয়ে উদ্বোধনকৃত নতুন থানার প্রথম মামলাটি রেকর্ড হয়। ২১ জানুয়ারী সকালে ইসলামাবাদ ইউনিয়ন খোদাই বাড়ী এলাকায় প্রাইভেট নোহা গাড়ির ধাক্কায় ইসলামপুর ইউনিয়নের নতুন অফিস জুম নগর এলাকার ইলিয়াছের ছেলে মোটর সাইকেল আরোহী সাইফুল ইসলাম ঘটনাস্থলে নিহত হন। এবং অপর ভাই জাহেদুল ইসলামও গুরুতর আহত হয়ে বর্তমান চমেক হাসপাতালে চিকিৎধীন। নিহত সাইফুলের লাশ ময়না তদন্ত সম্পন্ন করে ২২ জানুয়ারী দাফন সম্পন্ন হয়। উক্ত ঘটনায় নিহতের পিতা ইলিয়াছ ঈদগাঁও থানার ২য় মামলা হিসেবে এজাহার জমা দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন ইসলামপুর ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আব্দ শুক্কুর।

ঈদগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল হালিম জোড়া খুনের ঘটনাটি উক্ত থানার প্রথম মামলা এবং দ্বিতীয় মামলা হিসেবে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত সাইফুলের মামলাটি প্রক্রিয়াধীন বলে নিশ্চিত করেছেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.