Ultimate magazine theme for WordPress.

ফুল ফুটেছে, বাসন্তীসুরে পর্যটকদের ডাকছে তাহিরপুরে জয়নাল আবেদীন শিমুল বাগান।

0
১৭৬ Views

উজ্জ্বল হাসান সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি

এসে গেছে শীতের বিদায়ী বার্তা,গাছে গাছে পলাশ ও আমের মুকুলের আগমনের প্রকৃতিতে আগমন ঘটেছে ঋতুরাজ বসন্তের।এরই ধারাবাহিকতায় হাওর বেষ্টিত এলাকার পর্যটন কেন্দ্রের অন্যতম পর্যটন স্পট সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার লালগালিচার কেন্দ্রস্থল শিমুল বাগান।’

উল্লেখ্য-গত বছর করোনা ভাইরাসের থাবায় থমকে যায় দেশ-বিদেশ থেকে আসা পর্যটকদের ভিড়,তবে এই বছর ঋতুরাজ বসন্তের আগমনের আগেই সারাদেশে করোনা ভাইরাসের ভ্যাক্সিন সেবাদান চলমান।সবশেষে করোনার অবস্থা স্থিতিশীলও রয়েছে। এরই মধ্যে সতর্কতার সহিত প্রর্যটকদের আসার আনাগুনা শুরু হয়েছে পর্যটন কেন্দ্র শিমুল বাগানে।

রুপের জাদুকাটা নদী তীর ঘেঁষা মানিগাঁও এলাকায় ১০০ বিঘা জমিতে ২০০৩ সালে ৩ হাজারের অধিক সারি সারি বেঁধে শিমুলের চারা শখের বসে রোপন করেন,বৃক্ষ-প্রেমিক বাদাঘাট ইউনিয়নের সোহালা গ্রামের প্রয়াত চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জয়নাল আবেদীন।তার নাম অনুসারে ওই বাগানের নাম করন করা হয়েছে”জয়নাল আবেদীন শিমুল বাগান”এই বাগানের অপার সৌন্দর্য্য উপভোগ করতে দলবেঁধে আসেন দেশের একপ্রান্ত হতে অন্য প্রান্তের ভ্রমন পিয়াসু প্রকৃতি প্রেমিকগনেরা।’
বিশেষ করে ছুটির দিনগুলোতে দলবেঁধে ছুটে আসেন স্কুল-কলেজ,ইউনিভার্সিটি,বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষানবীশ ছাত্র-ছাত্রী,শিক্ষক,শিক্ষিকা থেকে শুরু করে সকল শ্রেণীর প্রকৃতিপ্রেমী মানুষজন।আবার অনেকেই আসেন শিক্ষা-সফর বনভোজনে।বর্ষাকালে জাদুকাটা নদী হয়ে শিমুল বাগানে নৌ-যোগে ছুটে আসেন পর্যটকগন।বিশ্ব ভালোবাসা দিবসেও উপছে পড়া বিড় হয় শিমুল বাগানে।নানা বাহারি নতুন পোষাক পরিধান করে সেল্ফিতে মেতে উঠেন বাগানে আসা ভ্রমন পিয়াসুগন।
আপনিও ছুটির দিনে প্রিয়জনদের নিয়ে চলে আসতে পারেন,লাল গালিচার যৌবন-সজ্জিত দৃষ্টিনন্দন জয়নাল আবেদীন শিমুল বাগানে।কথায় আছে যদি মনকে পরিষ্কার অথবা ভালো রাখতে চান তাহলে বেঁচে নিন প্রর্যটন কেন্দ্র ভ্রমন,যা আপনার মনকে সজীবতায় সজ্জিত করে নতুন করে চলার প্রেরণা যোগাবে।’

যেভাবে যাবেন-জেলা শহর সুনামগঞ্জ আব্দুর জহুর সেতু হতে আপনার সুবিদার্থে সিএনজি,মোটর সাইকেল,মাইক্রোবাস,লেগুনা দিয়ে লাউড়ের গড়,তারপর সরাসরি মোটর সাইকেল যোগে শিমুল বাগানে চলে আসতে পারবেন

Leave A Reply

Your email address will not be published.