Ultimate magazine theme for WordPress.

পটিয়ার মেলঘর এলাকায় প্রতিপক্ষের হামলায় আহত-২ গোয়াল ঘর ভাংচুরঃ থানায়অভিযোগ

0
২০ Views

 

 

আরিফুর ইসলাম,পটিয়াঃ- প্রতিনিধিঃ- চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার বড়লিয়া ইউনিয়নে ৯ নম্বর ওয়ার্ডে মেলঘর ছিদ্দিক মেম্বারের বাড়িতে পুর্বশক্রতার জের ধরে প্রতিপক্ষরা সন্রাসী কায়দায় হামলা চালিয়ে মোঃ আলমগীর ও তার পিতা আবুল কাসেম কে দেশীয় অস্ত্রশস্র দিয়ে হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত গুরুতর জখম করেছে মর্মে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৮ আগষ্ট সকাল অনুমান সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে আবুল কাসেম এর বসতঘরের উঠানে । এ ঘটনায় আবুল কাসেম এর ছেলে মোঃ আলমগীর বাদী হয়ে একই এলাকার শেখ মোহাম্মদ এর ছেলে আবু বক্কর, নুরুল ইসলামের ছেলে তৌহিদুল ইসলাম,টুটুল হকের ছেলে মোঃ জাহিদুল ইসলাম, আশিয়া ইউনিয়নের রহিম সাহেবের বাড়ির আবদুস শুক্কুর এর ছেলে মোঃ জসিম উদ্দিন এর বিরুদ্ধে পটিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। পটিয়া থানার দায়েরকৃত অভিযোগ সুএে জানায়ায়, আবুল কাসেম এর সাথে প্রতিপক্ষ শেখ মোহাম্মদ ও আবু বক্কর এর মধ্যে দীর্ঘদিন যাবত বাডি জায়গা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এর জের ধরে গত ২৮ আগষ্ট সকাল সাড়ে ১০ টার সময় বেআইনি জনতা গঠন করে দেশীয় অস্ত্রশস্র সজ্জিত হয়ে আবুল কাসেম এর গোয়ালঘর ভাংচুর তান্ডব চালিয়ে ৫০ হাজার টাকার ক্ষতিসাধন করে। এতে আবু কাসেম বাঁধা দিলে তাকে এলোপাতাড়ি কিল, ঘুষি, লাথি মেরে শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত গুরুতর জখম করে। এ সময় আবুল কাসেমের চিৎকার শুনে তার ছেলে মোঃ আলমগীর এগিয়ে আসলে প্রতিপক্ষরা তাকেও এলোপাতাড়ি পিটিয়ে জখম করে। পিতা পুএ

প্রতিপক্ষের হামলায় মুমূর্ষু অবস্থায় পড়ে থাকলে প্রতিপক্ষরা আরো ব্যাপরোয়া হয়ে আবুল কাসেম এর গৃহপালিত পশুগুলোকে চরম মারধর করে বলে থানার দায়েরকৃত অভিযোগ সুএে প্রকাশ। এত কিছুর পরেও বক্কর গং বসতঘরে অবরুদ্ধ করে রাখে বলে আলমগীর জানান।বর্তমানে প্রতিপক্ষরা দেশীয় অস্ত্র শস্র নিয়ে এলাকায় মহড়া দিচ্ছে। এতে আবুল কাসেম এর পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে রয়েছে। যে কোন মুহূর্তে আবারও হামলার আশংকা করছে আবুল কাসেম এর পরিবার । এ ব্যাপারে আহত পরিবার পটিয়ার এমপি জাতীয় সংসদের হুইপ আলহাজ্ব শামসুল হক চৌধুরীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছে। বিষয়টি সত্যিতা নিশ্চিত করেন তদন্ত কর্মকর্তা পটিয়া থানার এস আই মামুন।তিনি জানান অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত চলছে ওসি সাহের সাথে আলোচনা করে দায়ী ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ব্যাপারে বক্করের মোবাইলে একাধিকবার ফোন করে তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.