Ultimate magazine theme for WordPress.

বিয়ের প্রলোভনে দেখিয়ে ৭ বছর দৈহিক মেলামেশা বেনাপোলে পোর্ট থানায় মামলা

0
১৬৮ Views

 

মোঃ নজরুল ইসলাম বিশেষ প্রতিনিধ
তারিখ ১৪/১০/২০২০
ঢাকায় লীভ টুগেদার একটানা সাত বছর।শেষ পরিনতি গড়িয়েছে বেনাপোলে পোর্ট থানায় অভিযোগ দায়ের এর মধ্য দিয়ে। অভিযোগ প্রতারণার। উত্থাপিত অভিযোগ থেকে প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, ঘটনার ভিলেন মেহেদী হাসান ঝন্টু (২৮) আর নায়িকা মোছাঃ হীরা খাতুন (৩৪) উভয়ের বাড়ি বেনাপোল।ভিলেন বেনাপোল পৌরসভার পোড়াবাড়ি গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে। নায়িকা পৌরসভার ছোট আঁচড়া গ্রামের আবুল কাশেমের মেয়ে। জানা যায় প্রায় ৭ বছর আগে দুজনের পরিচয় এবং পরিণয়। সেই অবধি ঢাকায় দুজনার স্বামী স্ত্রী পরিচয়ে লীভ টুগেদার। এর মধ্যে ভিলেন বছর দুই বিদেশ সফর যায়। একটানা এই দীর্ঘ সময়ে তারা বৈধ ভাবে সংসার জীবনে আবদ্ধ হয়নি। তাতেও তেমন কোন সমস্যা ছিল না। তবে সম্প্রতি ভিলেন অন্যত্র বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ায় নতুন ঘটনার সুত্রপাত। ঘটনার দিন গত সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) নায়িকা বেনাপোল এর কোন একটি বাড়িতে দুজনের মিলিত হওয়ার একটি সাজানো আয়োজন করে। সেই অনুযায়ী দুজন এর দৈহিক মিলন কালে পুর্ব পরিকল্পিত সহযোগি কয়েকজন যুবক দ্বারা ভিলেন ধৃত হয়। এবং বিয়েতে বাধ্য করার চেষ্টা হলেও কৌশলে কিছু উত্তম মধ্যম খেয়ে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। এরপর মেয়েটি ওই যৌন মিলনের আলমত পরীক্ষা যশোর এর কোন এক হাসপাতালে। রিপোর্ট প্রাপ্তীর পর আজ মঙ্গলবার এই অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগ থেকে প্রাপ্ত তথ্য এবং অভিযোগকারীনির মোবাইল ফোনে কথা বলে একই তথ্য পাওয়া গেল। বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই রফিকুল ইসলাম অভিযোগের ভিত্তিতে নিশ্চিত করেছেন। অভিযোগকারী হীরা উল্লেখিত যুবক মেহেদী হাসান ঝন্টুর বিরুদ্ধে প্রতারনার অভিযোগ করেছেন। এদিকে অভিযোগকারির সাথে সরাসরি এই প্রতিবেদকের প্রশ্নে জবাবে তিনি বলেন বিয়ের প্রলোভনে তাকে একটানা সাত বছর দৈহিক ভাবে ভোগ করেছেন ওই যুবক। এমনকি বিভিন্ন সময় তার কাছ থেকে বিভিন্ন কায়দায় বিপুল পরিমান অর্থ সহযোগিতাও নিয়েছেন। জানাগেছে অভিযোগ প্রাপ্তির পর পুলিশ এর তদন্তকারী কর্মকর্তা আসামির খোঁজে গেলে তাকে কোথাও পাওয়া যায়নি বর্তমানে পলাতক আছে।
মোবাইল ০১৭১২৯৪৭৮৭১

Leave A Reply

Your email address will not be published.