Ultimate magazine theme for WordPress.

বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার ভাটগ্রাম ইউনিয়নে চাকলমা গ্রামে যৌতুকের টাকার জন্য গৃহবধূকে হত্যা।

0
৩৮ Views

 

বগুড়া ব্যুরো প্রধানঃ  ১১অক্টোবর( রবিবার ) বগুড়ার  নন্দীগ্রাম  উপজেলার ভাটগ্রাম ইউনিয়ন চাকলমা গ্রামে যৌতুকের টাকার জন্য স্বর্ণা (১৮)নামের গৃহবধূকে হত্যার ঘটনা ঘটেছে।
এ ঘটনায় পুলিশ ওই গৃহবধূর স্বামী খায়রুল আলম ও শাশুড়ি নাদিরা বেগমকে আটক করেছে। জানা গেছে, উপজেলার ভাটগ্রাম ইউনিয়নের চাকলমা গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে খায়রুল আলম(২২) পার্শবর্তী কালিশ গ্রামের আনোয়ার হোসেনের মেয়ে স্বর্ণা খাতুনকে ভালোবেসে গত ৯ মাস আগে বিবাহ্ করে সংসার জীবন শুরু করে।
১১ অক্টোবর (রবিবার) সকাল আনুমানিক ১০ টায় নববধু স্বর্ণা খাতুন গলায় ফাঁস দিয়েছে এমন কথা ছড়িয়ে স্বামী , শ্বশুর ও শ্বাশুড়ি উপজেলার বিজরুলস্থ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।
সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত্যু বলে ঘোষণা করে । এরপর তারা সেখান থেকে পালিয়ে যায়। এ খবর পেয়ে নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ শওকত কবির পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। অপরদিকে নববধু স্বর্ণা খাতুনের লাশ ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া মর্গে প্রেরণ করে। ধারনা করা হচ্ছে তাকে মারপিট ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এ বিষয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ শওকত কবির বলেছে, নিহত স্বর্ণা খাতুনের শরীরে আঘাতের দাগ রয়েছে। তার মৃত্যু খুব রহস্যজনক। বিষয়টি গুরুত্বের সাথে খতিয়ে  দেখা হচ্ছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.