Ultimate magazine theme for WordPress.

পটুয়াখালীতে কলেজ ছাত্রকে মারধর, চেয়ারম্যান মনির মৃধার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ।

0
১৬৭ Views

 

মোঃ তুহিন শরীফ, স্টাফ রিপোটার্র।

পটুয়াখালীতে সরকারি চাল আত্মসাতের ঘটনায় বরখাস্ত হওয়া সদর উপজেলার কমলাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনির মৃধা কর্তৃক শাহিন নামের এক কলেজ ছাত্রকে লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে, গত বুধবার (০৭-অক্টোবর-২০২০ ইং) তারিখ দক্ষিণ ধরান্দী কৌড়াখালী খেয়াঘাটে। এবিষয়ে পটুয়াখালী সদর থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করেন ঐ কলেজ ছাত্র।

অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে, পটুয়াখালী জেলা শহরের ভায়া কমলাপুর রুটের কৌড়াখালী খেয়াঘাটে কমলাপুর ইউপি চেয়ারম্যানের সঙ্গে একত্রে নৌকায় ওঠার অপরাধে মো. শাহিন উদ্দিন নামে এক কলেজ ছাত্রকে কিল,ঘুষি,লাতি মেরে মারধর করে চেয়ারম্যান নিজেই। এঘটনায় ওই কলেজ ছাত্র গত- ০৭/১০/২০২০ ইং পটুয়াখালী সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। ডায়েরী নং-৩৩০/২০।

এনিয়ে কলেজ ছাত্র শাহিন বলেন, শাহিন বুধবার দুপুরে কমলাপুরের নিজ বাড়ী থেকে মোটরসাইকেল যোগে জেলা শহরে আসার জন্য কৌড়াখালী খেয়াঘাটে পৌছায়। এসময় ঘাটে নোঙ্গর করা খেয়ায় মটরসাইকেল নিয়ে উঠতে গেলে চেয়ারম্যান খেয়ায় উঠতে নিষেধ করে। এবং এটা তার নিজের সংরক্ষিত খেয়া বলে জানায়। শাহিন আরও বলেন, আমি তার নিষেধ না শুনে খেয়ায় উঠলে আমাকে চেয়ারম্যান মনির হোসেন মৃধা প্রকাশ্যে কিল ঘুষি ও লাথি মারেন। মারধোরের এক পর্যায় হুমকীও দেয়া হয় বলে অভিযোগ করেন।পরে স্থানীয়রা চেয়ারম্যানের হাত থেকে আমাকে উদ্ধার করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয় বলে জানান।

এ প্রসঙ্গে অভিযোগ অস্বীকার করে কমলাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মনির হোসেন মৃধা জানান, ‘আমার সাথে মৎস্য অফিসের লোকজন ছিল। তাই নৌকা ডুবির আশংকায় তাকে উঠতে বারণ করেছি। কিন্তু মারধোর করা হয়নি।এধরনের অভিযোগ সম্পুর্ন ভিত্তিহীন বলে জানান।

 

এব্যাপারে পটুয়াখালী সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আকতার মোর্শেদ জানান, উল্লেখিত ঘটনায় সাধারণ ডায়রি হয়েছে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.