Ultimate magazine theme for WordPress.

তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী টেম্পু আটক

0
৫৯ Views

আব্দুল করিম চট্টগ্রাম জেলা প্রতিনিধি

চট্টগ্রামে পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ মো. ইসমাইল হোসেন প্রকাশ টেম্পু (৩৫)। চান্দগাঁও থানাধীন পশ্চিম ফরিদারপাড়া এলাকার ইউসুফ প্রকাশ বাম্পার ইউসুফের ছেলে।পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে নগরের চান্দগাঁও, বায়েজিদসহ বিভিন্ন চাঁদাবাজি, ছিনতাই করে বেড়ান মো. ইসমাইল হোসেন প্রকাশ টেম্পু।
নগরীর বায়েজিদ থানাধীন রৌফাবাদ এলাকা থেকে ইসমাইল হোসেন প্রকাশ টেম্পুকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তার কাছ থেকে একটি অস্ত্র, গুলি, একটি চাপাতি ও ৫৪৫ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (০১ অক্টোবর) সংবাদ সম্মেলনে ইসমাইল হোসেন প্রকাশ টেম্পুকে গ্রেফতারের বিষয়টি জানান চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটনপুুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) বিজয় বসাক।
উপ-কমিশনার (উত্তর) বিজয় বসাক জানান, ইসমাইল হোসেন প্রকাশ টেম্পু পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় মোট ২৯টি মামলা রয়েছে।
নগরীর চান্দগাঁও, বায়েজিদসহ বিভিন্ন চাঁদাবাজি, ছিনতাই করে বেড়ান মো. ইসমাইল হোসেন প্রকাশ টেম্পু। তার পরিবারের অন্য সদস্যরাও ছিনতাই, চাঁদাবাজির সঙ্গে জড়িত। তাদের বিরুদ্ধেও থানায় মামলা রয়েছে।
তিনি জানান, ইসমাইল হোসেন প্রকাশ টেম্পু বিভিন্ন সময় গ্রেফতার হয়ে কারাগারে গেলেও জামিনে এসে ফের অপরাধে জড়িয়ে পড়ে। একটি ছিনতাইয়ের ঘটনার আসামি ধরতে গিয়ে ইসমাইল হোসেন প্রকাশ টেম্পুকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।সংবাদ সম্মেলনে সিএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (উত্তর) আশিকুর রহমান, সহকারী কমিশনার (পাঁচলাইশ জোন) দেবদূত মজুমদার, সহকারী কমিশনার (বায়েজিদ জোন) পরিত্রাণ তালুকদার, চান্দগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান খন্দকার, বায়েজিদ থানার ওসি প্রিটন সরকার উপস্থিত ছিলেন। টেম্পু হিসেবে পরিচিতি যেভাবেউপ-কমিশনার (উত্তর) বিজয় বসাক বলেন, ইসমাইল হোসেন ছিনতাইয়ের কাজে টেম্পু ব্যবহার করতেন। চাঁদা আদায় করতেও যেতেনে টেম্পুতে চড়ে। এ কারণে লোকজন তাকে টেম্পু নামে ডাকা শুরু করে। পরে সন্ত্রাসী ইসমাইল হোসেন টেম্পু নামে পরিচিতি পায়।তিনি বলেন, ইসমাইল হোসেন প্রকাশ টেম্পু ছিনতাইয়ের কাছে মোটরসাইকেল ব্যবহার করেন। মোটরসাইকেলে চালক রেখে নিজে পেছনে বসে ছিনতাই করেন।চান্দগাঁও থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রাজেস বড়ুয়া বলেন, ১৭ সেপ্টেম্বর বহদ্দারহাট মোড় থেকে আবাসিক এলাকায় বাসায় যাওয়ার পথে ছিনতাইয়ের শিকার হন মানারাত রেসিডেন্সিয়াল স্কুলের একজন শিক্ষিকা। ভুক্তভোগী থানায় মামলা দায়ের করেন। এ মামলার আসামি ইসমাইল হোসেন প্রকাশ টেম্পু। টেম্পু ছিনতাইয়ে নেতৃত্ব দেয়।
তিনি বলেন, চাঁদার টাকা আদায় করতে ইসমাইল হোসেন প্রকাশ টেম্পু নিজের মাকে পাঠায়। এলাকায় ভয়ভীতি দেখাতে মাঝেমাঝে ফাঁকা গুলি করে বলে আমাদের কাছে তথ্য রয়েছে। তাকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.