Ultimate magazine theme for WordPress.

লামা সরকারি মাতামুহুরী কলেজ ছাত্র আবুল কালাম বাঁচতে চায়

0
৫৪ Views

জাহিদ হাসান,লামা

বান্দরবানের লামা সরকারি মাতামুহুরী কলেজ ছাত্র আবুল কালাম বাঁচতে চায়।কোমরের হাঁড় ক্ষয়(এবিএন) জনিত কারনে আজ পঙ্গু সে।ডাক্তার বলছে তার অপারেশনের জন্য দশ লক্ষ টাকা প্রয়োজন।তার অসহায় পরিবারের পক্ষে এ টাকা যোগাড় করা প্রায় অসম্বভ। সমাজের বিত্তবানদের মানবিক সহযোগীতা পেলে বাঁচবে সে।পা পড়বে প্রাণ প্রিয় শিক্ষা প্রতিষ্টান মাতামুহুরী সরকারি কলেজে।জীবন সাজাতে স্বপ্ন দেখবে নতুন করে।
আবুল কালাম সরকারি মাতামুহুরী কলেজের ডিগ্রী তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। একই কলেজ থেকে ২০১৩ সালে কর্মাস বিভাগ থেকে এইচএসসি ও ২০১১ সালে লাইনঝিরি মোহাম্মদিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা থেকে কৃতিত্বের সাথে দাখিল পাস করে এই মেধাবী শিক্ষার্থি।ডিগ্রী ১ম ও ২য় বর্ষ কৃতিত্বের সাথে পাস করলেও পায়ের অপারেশনের কারনে ৩য় বর্ষের পরীক্ষা দেওয়া হয়নি তার।
২০১৭ সালের শেষের দিকে কোমরের নিচে সামান্য ব্যাথা অনুভব করে সে।বিভিন্ন ডাক্তার দেখিয়ে ঔষধ সেবন করলেও কোনরুপ ফল পাওয়া যায়নি এবং ক্রমান্বয়ে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে হাঁটতে শুরু করে আবুল কালাম।।পরে ২০১৯ সালের এপ্রিল মাসে চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজের অভিজ্ঞ ডাক্তারের সরণাপন্ন হলে পরীক্ষা নিরীক্ষার মাধ্যমে Avascular Necrosis(AVN) বা কোমরে জয়েন্ট ক্ষয় রোগ ধরা পড়ে।অপারেশন করার পরামর্শ দেন ডাক্তার।ডাক্তারের পরামর্শমতে দরিদ্র পরিবারের সন্তান আবুল কালাম অনেক কষ্টে আত্মীয় স্বজনের সহযোগীতায় টাকা যোগাড় করে ২০১৯ সালের ১২ নভেম্বর অপারেশন করান।৩/৪ মাস পরে ব্যাথা আরও বেড়ে গেলে এবং তার পায়ের অবস্থা পূর্বের চেয়ে আরও বেগতিক হলে পুনরায় ঐ ডাক্তারের শরণাপন্ন হলে ডাক্তার জানান, অপারেশন সফল হয়নি,আবার অপারেশন করতে হবে এবং এর জন্য প্রায় দশ লক্ষ টাকা খরচ হবে।উল্লেখ্য,অপরেশনের আগে স্ট্রেচ ছাড়া খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে হাটতে পারলেও অপরেশনের পরে স্ট্রেচ ছাড়া মোটেও হাঁটতে পারছেনা সে।তার বাবা জাহাঙ্গির আলম একজন দরিদ্র কৃষক এবং মা দিলারা বেগম একজন গৃহিনী। সংসারে তারা ৩ ভাই,৪ বোনের মধ্যে আবুল কালাম সবার বড়।এতবড় সংসারে নুন আনতে পান্তা পুরাই তার বাবার।তার উপর ছেলের চিকিৎসার জন্য ১০ লক্ষ টাকার কথা শুনে নির্বাক বাবা মা।সামান্য টাকা পয়সা যা ছিল তাও প্রথম অপারেশনে দিয়ে দিয়েছেন।তাই ছেলেকে বাঁচাতে বিত্তবানদের দুয়ারে দুয়ারে ধর্ণা দিচ্ছেন তারা।সকলের কাছে আকুতি জানিয়েছেন তাদের ছেলেকে বাঁচাতে।এরি মধ্যে বন্ধুবান্দব, শিক্ষক কালামকে বাঁচাতে পাশে দাঁড়িয়েছে।সমাজের বিত্তবানরাও কালামের পাশে দাঁড়িয়ে মানবতার হাত বাড়িয়ে দিলে বেঁচে যাবে কালাম, বেঁচে যাবে একটি দরিদ্র মায়ের নাড়ি ছেড়া ধন।
আসুন সবাই কালামকে বাঁচাই, কালামের পাশে দাঁড়ায়।কালাম হারলে হারবে মানবতা।
সাহায্য করার ঠিকানা
আবুল কালাম
বিকাশ-০১৮২৮৯৩৫০১৮
নগদ-০১৬২৬১৬৪৮৫২

Leave A Reply

Your email address will not be published.