Ultimate magazine theme for WordPress.

উখিয়ার  আলোচিত ওসি মর্জিনাকে সিলেটে বদলিসহ গনবদলি আমুল পরিবর্তন

0
৯৫ Views

সেলিম চৌধুরী, স্টাফ রিপোর্টারঃ– কক্সবাজার জেলার  ছয়টি থানার ছয়জন ওসিসহ আরও ৩৪ জন পরিদর্শককে বদলি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) পুলিশ সদর দপ্তরের এক প্রজ্ঞাপনে এ বদলির কথা জানানো হয়। এরমধ্যে উখিয়া থানার আলোচিত ওসি মর্জিনা আক্তারকে সিলেট রেঞ্জে বদলি করা হয়েছে।এর আগে দুই দফায় পুলিশ সুপার এ বি এম মাসুদ হোসেনসহ আট শীর্ষ পুলিশ কর্মকর্তাকে বদলি করা হয়।গত ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের মেরিন ড্রাইভ সড়কের শামলাপুর তল্লাশিচৌকিতে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা সিনহা মো. রাশেদ খান। এ ঘটনায় জেলা পুলিশের কর্মকাণ্ড ও ভূমিকা নিয়ে বিভিন্ন মহলে প্রতিক্রিয়া হয়। এছাড়াও সিনহা হত্যার ঘটনায় সারা বাংলাদেশ আলোচনা সমালোচনা সৃষ্টি হয়েছে। পুলিশের ভাবমূর্তি পিরিয়ে আনতে উর্ধতন কতৃপক্ষ কটোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।               এরপর জেলা পুলিশকে ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নেয় সদর দপ্তর। বর্তমানে জেলা পুলিশে কর্মরত আছেন বিভিন্ন পদমর্যাদার প্রায় ১ হাজার ৭০০ সদস্য।গত বৃহস্পতিবারের প্রজ্ঞাপনে উখিয়া থানার ওসি মর্জিনা আকতারকে সিলেট রেঞ্জে, বদলি করা হয়েছে তার বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ রয়েছে। এমনকি ওসি প্রদীপ মিলে এক মেম্বার এর কাছ থেকে ৫১ লক্ষ টাকা ভাগবাটোয়ারা অভিযোগ উঠেছে। এমকি মর্জিনা ভাংতি ৫ টাকার পয়সা নিয়েছে বলে ভুক্তাভোগি পরিবারের অভিযোগ রয়েছে। সিমাহীন ক্ষমতার অপব্যবহার করে কোটি টাকা আয়ের অভিযোগ রয়েছে। ওসি প্রদীপের ঘনিষ্ঠ সহযোগী ছিলেন বলে উখিয়ায় জনশ্রুতি রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এইসবের তদন্ত হওয়ার উচিত মনে করেন সচেতন মহল।        মহেশখালী থানার ওসি দিদারুল ফেরদৌসকে বরিশাল রেঞ্জে, চকরিয়া থানার ওসি হাবিবুর রহমানকে পটিয়া প্রবাসী জাপর ও দিন মজুুুর হাসান কে পটিয়া থেকে তুলে নিয়ে ৫০ লক্ষ টাকা চাঁদাা দাবি করে। টাকা 

না দেওয়ায় ক্রসফায়ারে হত্যা মামলা রুজু হয় মামলাটি সিআইডি তদন্ত করছে। তার সাথে ফাঁডির ইনচার্জ আমিনুল ইসলাম ও রয়েছে।                    খুলনা রেঞ্জে, রামু থানার ওসি আবুল খায়েরকে রাজাশাহী রেঞ্জে, পেকুয়া থানার ওসি কামরুল আজমকে রংপুর রেঞ্জে, কুতুবদিয়া থানার ওসি এ কে এম শফিকুল ইসলাম চৌধুীকে খুলনা রেঞ্জে বদলি করা হয়।এ ছাড়া জেলার টেকনাফ, চকরিয়া, মহেশখালী, উখিয়া, পেকুয়া, কুতুবদিয়া, রামু থানা, চারটি পুলিশ ফাঁড়ি, আদালত, জেলা গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি) এবং ট্রাফিক বিভাগে কর্মরত আরও ২৮ জন পুলিশ পরিদর্শককে একযোগে চট্টগ্রাম রেঞ্জের বাইরে বদলি করা হয়েছে।উখিয়া থানার প্রথম নারী ওসি মর্জিনা আক্তারের বিরুদ্ধে সম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন অভিযোগ ওঠেছে। এক কলেজ ছাত্রী তার বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন মামলাও করেছেন। এছাড়া ওসি প্রদীপের সাথে মিলে এক ব্যক্তিকে ধরে এনে তার বাসার টাকাপয়সা লুটপাটের অভিযোগ ওঠেছে মর্জিনার বিরুদ্ধে।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন বলেন, সদর দপ্তরের নির্দেশনায় পরিদর্শক পদমর্যাদার ৩৪ জনকে বদলি করা হয়েছে। কিন্তু কী কারণে বদলি করা হয়েছে, তিনি জানেন না।গত সপ্তাহে সদর দপ্তরের নির্দেশনায় পুলিশ সুপার এ বি এম মাসুদ হোসেনকে রাজশাহী জেলার এসপি হিসেবে বদলি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে তিনি রাজশাহীর উদ্দেশে কক্সবাজার ত্যাগ করেন। আগের দিন বুধবার নতুন এসপি হিসেবে যোগ দেন ঝিনাইদহের এসপি মো. হাসানুজ্জামান।

২১ সেপ্টেম্বর পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বদলি করা হয় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও সহকারী পুলিশ সুপার পদমর্যাদার সাত কর্মকর্তাকে।

এর মধ্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইনকে ডিএমপির অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার, কক্সবাজার সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আদিবুল ইসলামকে মুন্সিগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, কক্সবাজার সদরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজওয়ান আহমেদকে গাজীপুর জিএমপির অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার, মহেশখালী সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার রতন কুমার দাশ গুপ্তকে চট্টগ্রাম নবম এপিবিএনের সহকারী পুলিশ সুপার, ট্রাফিক পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার বাবুল চন্দ্র বণিককে চট্টগ্রাম রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্সের (আরআরএফ) সহকারী পুলিশ সুপার, চকরিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার কাজী মো. মতিউল ইসলামকে নোয়াখালীর সহকারী পুলিশ সুপার ও ডিএসবির সহকারী পুলিশ সুপার মো. শহিদুল ইসলামকে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) সহকারী পুলিশ কমিশনার হিসেবে বদলি করা হয়।বর্তমানে সিনহা হত্যা মামলায় টেকনাফ থানার বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ সাত পুলিশ কর্মকর্তা কারাগারে রয়েছেন।সিনহা হত্যা কান্ডের মধ্যে দিয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে একের পর এক আদালত মামলা রুজু হয়েছে। দেশের মধ্যে ব্যাপক সমালোচনা জন্ম দিয়েছে। উর্ধতন পুলিশ প্রশাসন শৃঙ্খলা পিরিয়ে আনতে আমুল পরিবর্তন এনেছেন। এতে কক্সবাজার জেলার মানুষের মধ্যে স্বস্তি দেখা দিয়েছে।

সেলিম চৌধুরী

পটিয়া প্রতিনিধি

পটিয়া চট্টগ্রাম

০১৮১৯৩৪৯৪৪২

Leave A Reply

Your email address will not be published.