Ultimate magazine theme for WordPress.

চুয়াডাঙ্গা জেলায় বঙ্গবন্ধুর প্রথম ভাস্বর্য নির্মিত হলো দর্শনা থানার পারকৃষ্ণপুর-মদনা বাজার মাঠে।

0
১২১ Views

স্টাফ রিপোর্টারঃ- মোঃ আইনাল হক     

হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্বর্য নির্মিত হলো চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা থানার পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়নের মদনা বাজার মাঠে। পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়নের সুযোগ্য চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক এস.এ.এম জাকারিয়া আলমের আন্তরিক সহযোগিতায় এবং পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়ন পরিষদের বাস্তবায়নে বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী জেলার প্রত্যন্ত গ্রামীণ অঞ্চলের মত জায়গায় বঙ্গবন্ধুর মত বাঙালি জাতির স্থপতির ভাস্বর্য নির্মাণ প্রমাণ করে কতটা আন্তরিকতা এবং ভালবাসা থাকলে এমন অসাধ্য কাজ করা সম্ভব । আর এমনই অসাধ্য মহান কাজটি করেছেন ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর, নির্ভীক সংবাদের বিশেষ প্রতিবেদক সাংবাদিক আব্দুস সামাদ আজাদ বিপু।

জাতির জনকের ভাস্বর্য নির্মাণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, শিল্পকলা পেশার সাথে যুক্ত থাকার কারণেই এ ধরনের অসাধ্য কাজ করার সাহস হয়েছে । এছাড়া বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বড় পরিসরের কিছু কাজের অংশ হিসাবেই বঙ্গবন্ধু ভাস্বর্য নির্মাণ করা । তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রখ্যাত ভাস্কর বন্ধুবর অখিল পালের সাথে কিছু কাজের সাথে থাকতে থাকতেই সাহসটা হয়ে গেছে। এ বিষয়ে আমার প্রথাগত কোন শিক্ষা নেই। যেটুকু শিক্ষা তা সচেষ্টায় । বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণে আন্তরিক সহোযগিতা করার জন্য কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এস.এ.এম জাকারিয়া আলমের কাছে। সেই সাথে আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন বঙ্গবন্ধু এবং মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক শিল্পকর্মগুলো সম্পন্ন করার জন্য। এস.এস. শীট, এম.এস. শীট ও আয়রন বারে নির্মিত বঙ্গবন্ধুর ভাস্বর্য এবং কংক্রিট, টাইলস নির্মিত স্মৃতিসৌধটি বিগত ১২ সেপ্টেম্বর’২০ অনানুষ্ঠানিকভাবেই ভাস্বর্যসহ মদনা যুদ্ধের স্মৃতি জড়িত স্বাধীনতা সংগ্রামে অগ্নিঝরা মদনা স্মৃতিসৌধের উদ্বোধন করেন দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব দিলারা রহমান।

Leave A Reply

Your email address will not be published.