Ultimate magazine theme for WordPress.

ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে মাটিরাঙ্গা সেনা জোনের ব্যবস্থাপনায় ঢাকা ম্যারাথন ২০২১ অনুষ্ঠিত।

0
৬৮ Views

মোঃ ফারুক হোসেন মাটিরাঙ্গা প্রতিনিধিঃ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে কর্মসূচির অংশ হিসেবে মাটিরাঙ্গায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন ২০২১ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ রবিবার ৭ ই( মার্চ) সকালে এই ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় সামরিক অসামরিক প্রায় ৫০০ জন প্রতিযোগী।

গুইমারা রিজিয়ন এর তত্ত্বাবধানে মাটিরাঙ্গা জোন এর সার্বিক ব্যবস্থাপনায় উৎসবমুখর পরিবেশে স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে আঁকা-বাঁকা পাহাড়ি রাস্তায় এ ম্যারাথন দৌড়ের আয়োজন করা হয়।
আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও খাগড়াছড়ি ২৯৮নং আসনের সাংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, গুইমারা রিজিয়নের রিজিয়ন কমান্ডার, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ মোয়াজ্জেম হোসেন, মাটিরাঙ্গা জোনের, জোন কমান্ডার লেঃ কর্নেল মোহসীন হাসান।

এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন,সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (মাটিরাঙ্গা সার্কেল) খোরশেদ আলম, মাটিরাঙ্গা আদর্শ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম,মাটিরাঙ্গা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আলী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম হুমায়ুন মোরর্শেদ খান, মাটিরাঙ্গা পৌর নবনির্বাচিত মেয়র শামসুল হক, পাবর্ত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিরন জয় ত্রিপুরা,ও সাংবাদিক বৃন্দ।

এ সময় মাটিরাঙ্গা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে দৌড় শুরু হয়ে প্রায় ৫ কিলোমিটার উঁচু-নিচু পাহাড়ি পথ অতিক্রম করে হাতিয়াপাড়া মোড় হয়ে ইউটার্ন নিয়ে আবার মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এসে পৌঁছে। এরপর প্রতিযোগিতার ১ম থেকে ১০ম তম স্থান অধিকারীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া হয়।
পরবর্তীতে পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি সম্প্রীতি উন্নয়নে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর শান্তকরনের অংশ হিসেবে প্রত্যন্ত অঞ্চলের দুঃস্থ পাহাড়ি -বাঙ্গালী ১২০ জন অধিবাসীর মাঝে বস্ত্র বিতরণ করা হয়। এছাড়াও দিনব্যাপী উক্ত অনুষ্ঠানস্থলে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ ও এর তাৎপর্য উপর বিভিন্ন তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী গুইমারা রিজিয়নের তত্বাবধানে মাটিরাঙ্গা জোন ঐতিহাসিক ৭মার্চ আজকের এই দিনে একটি মহত উদ্যোগ নিয়েছেন,পাহাড়ে শান্তি শৃঙ্খলার জন্য নিঃস্বার্থে কাজ করে যাচ্ছেন সেনাবাহিনী।

ঐতিহাসিক ৭ মার্চ। বাঙালি জাতির দীর্ঘ স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের একটি দিন। ১৯৭১ সালের এই দিনে ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমানে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) এক বিশাল জনসমুদ্রে দাঁড়িয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের ডাক দেন। মুক্তিপ্রেমী লাখো জনতার সামনে ১৯ মিনিট ধরে দেয়া ভাষণে বঙ্গবন্ধু অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দেন। সেই সাথে তিনি পাকিস্তানের শোষণকারী শাসকগোষ্ঠীর হাত থেকে দেশকে মুক্ত করতে জাতিকে স্বাধীনতা যুদ্ধের প্রস্তুতি নেয়ার নির্দেশ দেন। বঙ্গবন্ধুর কণ্ঠে ধ্বনিত হয়- ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।’

Leave A Reply

Your email address will not be published.