Ultimate magazine theme for WordPress.

ঠাকুরগাঁও সীমান্তে কিশোরকে নির্যাতন, মৃত ভেবে ফেলে গেল বিএসএফ সদস্যরা!

0
৫৪ Views

মোঃ আকতারুল ইসলাম আক্তার ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি:

সীমান্তের পার্শ্বে জমিতে বোরো ধানের চারা রোপন করার সময় ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার বেতনা সীমান্তে শাহা আলম (১৭) নামে এক কিশোরকে বেধরক মারপিট করে মৃত ভেবে সীমান্তে ফেলে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ সদস্যদের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার দুপুর ১টার সময় হরিপুর উপজেলার বেতনা সীমান্তের ৩৬৭ পিলারে নিকট এ ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন বেতনা বিজিবি ক্যাম্পের ক্যাম্প কোমান্ডার হাবিব।

ভারতের কোয়ালিঘর ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যরা এমন পাশবিক নির্যাতন চালিয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে পতাকা বৈঠক করার জন্য বিএসএফকে চিঠি প্রদান করা হয়েছে।

আহত শাহা আলম হরিপুর উপজেলার মানিকখাড়ী গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে। তিনি বর্তমানে হরিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

হরিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত চিকিৎসক সজিব জানান, চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে। শরীরে বিভিন্ন ধরনের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

আহত কিশোরের বাবা নজরুল ইসলাম জানান, সকালে সীমান্তের ৩৬৭ নং পিলারের কাছে নিজের জমিতে বোরো ধানের রোপা রোপন করছিল শাহা আলম। দুপুরে হটাৎ কোয়ালিঘর ক্যাম্পের বিএসএফ’র সদস্যরা এসে তাকে তুলে নিয়ে কাটাতারের কাছে নিয়ে পাশবিক নির্যাতন চালায়। নির্যাতনের কারণে শাহা আলম অজ্ঞান হয়ে গেলে মৃত ভেবে ফেলে চলে যায় বিএসএফ সদস্যরা।

স্থানীয়রা খবর দিলে আমরা সকলে গিয়ে শাহা আলমকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করি। ছেলের নির্মম ভাবে নির্যাতনের বিচারের পাশাপাশি সীমান্তে নিরাপত্তার সাথে কৃষি কাজ করার নিশ্চয়তা দাবি করেছেন নজরুল ইসলামসহ স্থানীয় কৃষকরা।

এ বিষয়ে জানতে ঠাকুরগাঁও ৫০ বিজিবির অধিনায়ক লে কর্নেল শহিদুল ইসলামের সাথেে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.