Ultimate magazine theme for WordPress.

আশাশুনিতে ট্রলার ডুবির ৭৮ ঘন্টা পর দ্বিতীয় মৃতদেহ উদ্ধার।

0
৮২ Views

বি এম আলাউদ্দীন, আশাশুনি প্রতিনিধি:

আশাশুনিতে ট্রলার ডুবে ৩ শ্রমিক নিখোঁজের ৭৮ ঘন্টা পর দ্বিতীয় ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১২ টার দিকে শ্রীপুর-কুড়িকাহুনিয়া কপোতাক্ষ নদের তীর থেকে এ মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।
শুক্রবার প্রতাপনগর ইউনিয়নের কুড়িকাহুনিয়া কপোতাক্ষ নদের তীরে ভাসমান অবস্থায় ২য় ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। তিনি বকচর গ্রামের মৃত্য ফজলে সানার পুত্র শফিকুল ইসলাম সানা (৫০)। কোস্টগার্ডের ডুবুরিরা মৃতদেহটি উদ্ধার করেন। পরে লাশটি স্বজনদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। এদিন বাদ আসর বকচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কাম সাইক্লোন শেল্টার চত্বরে মরহুমের নামাজে জানাযা শেষে মৃতদেহ দাফন করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মীর আলিফ রেজা, থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মাদ গোলাম কবির ও শ্রীউলা ইউপি চেয়ারম্যান আবু হেনা সাকিল এসময় উপস্থিত ছিলেন এবং চেয়ারম্যান লাশ দাফনের সহায়তার জন্য নিজস্ব তহবিল হতে ৫ হাজার টাকা সহায়তা করেছেন।
উল্লেখ্য, গত ১৬ ফেব্রুয়ারি ভোর ৬ টায় শ্রীপুর-কুড়িকাহুনিয়ায় পাউবো’র ভেঙ্গে যাওয়া বেড়ী বাঁধ নির্মান কাজে নিয়োজিত ১২ শ্রমিক ট্রলারে নদী পার হওয়ার সময় ট্রলারটি প্রবল স্রোতে ও ঘোলে ডুবে যায়। ৯ জন শ্রমিকের হদিস মিললেও ৩ জনের কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। ফায়ার সার্ভিসের ও কোষ্টগার্ডের ডুবুরিদল নিখোঁজের ৫৪ ঘন্টা পর একই স্থান হতে একই গ্রামের মনজিল গাজীর পুত্র বাবর আলির মৃতদেহ উদ্ধার করেন। নিখোঁজ অপর শ্রমিক পুইজালা গ্রামের আঃ আজিজের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.