Ultimate magazine theme for WordPress.

মহান ২১শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বাড্ডা থানা যুবলীগ এর বিশেষ বর্ধিত সভা।

0
৭০ Views

হুমায়ুন আহমেদ

ষ্টাফ রিপোটার,বাড্ডা গুলশান-১।
আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারী আমি কি ভুলিতে পারি। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বাড্ডা থানা আওয়ামী যুবলীগ কর্তৃক আয়োজিত বিশেষ বর্ধিত সভা। ঢাকা মহানগর আওয়ামী যুবলীগ উত্তর। এই সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাহাঙ্গীর রহমান সাংগঠনিক সম্পাদক ঢাকা মহানগর আওয়ামী যুবলীগ উত্তর। জাহাঙ্গীর রহমান তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন মহান ২১শে ফেব্রুয়ারি আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে গুলশান থানা আওয়ামী যুবলীগ ও বাড্ডা থানার অন্তর্ভুক্ত ২১,৯৭,৩৭,৩৮,৪১,৪২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী যুবলীগের সকল নেতৃবৃন্দ। কর্মী ভাইদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, তিনি এক শুভেচ্ছা বার্তায় বলেন “মহান শহীদ দিবস এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বাংলা ভাষাভাষীসহ বিশ্বের সকল ভাষা ও সংস্কৃতির জনগণকে আমি আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাই। মহান একুশে ফেব্রুয়ারি বাঙালির জীবনে শোক, শক্তি ও গৌরবের প্রতীক। ১৯৫২ সালের এ দিনে ভাষার মর্যাদা রক্ষা করতে প্রাণ দিয়েছিলেন রফিক, শফিক, সালাম, বরকত ও জব্বারসহ আরও অনেকে।
সভায় সভাপতিত্ব করেন কায়সার মাহমুদ আহবায়ক বাড্ডা থানা আওয়ামী যুবলীগ। কায়সার মাহমুদ সংক্ষিপ্ত এক বক্তব্যে তিনি বলেন মহান ২১শে ফেব্রুয়ারি আমাদের অস্হিত্বের সাথে সম্পৃক্ত। মা’য়ের ভাষার মর্যাদা রক্ষা করতে এ দেশের অনেক সুর্যসন্তান তাদের জীবন বিসর্জন দিয়েছেন, অকাতরে রক্ত ঝরেছে অনেক ভাইয়ের। পৃথিবীর ইতিহাসে ভাষার জন্য সংগ্রাম করে রাজপথে বুকের রক্ত ঢেলেছে সে নজীর একমাত্র বাঙ্গালীই সৃষ্টি করেছে। যারা সেদিন ভাষার মান রক্ষার দাবীতে আন্দোলন করেছে তার মধ্যে অন্যতম সালাম, জব্বার, বরকত, রফিক। তারা ও একটি সুন্দর জীবনের আশায় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছিলেন, তাদের ও মা বাবা ভাইবোন ছিল, পড়াশুনা শেষ করে তারা একদিন পরিবারের হাল ধরবেন, সেটা ছিল তাদের স্বপ্ন, কিন্তু কুখ্যাত ইয়াহিয়া সরকার তাদের লেলিয়ে দেওয়া কুত্তা বাহিনীকে দিয়ে আমার ভাইদের নির্মম ভাবে হত্যা করে। তারা ভেবেছিলে হত্যাযজ্ঞ চালালেই বাঙ্গালী চুপ হয়ে যাবে। কিন্তু না, এ জগন্য হত্যাকান্ডের পর সারা বাংলার ছাত্রসমাজ, আবাল বৃদ্ধ বনিতা কঠোর আন্দোলন সংগ্রাম বেগবান করে, এ ভাষার মর্যাদা রক্ষা করেছে। আমরা ফিরে ফেলাম আমাদের মা’য়ের ভাষা বাংলাভাষা। বিনিময়ে হারাতে হল অনেক সম্ভাবনাময়ী বাঙ্গালী ভাইদের। গভীর শ্রদ্ধাবনতমস্তকে তাদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাই। এ ভাষা আমার মা’য়ের ভাষা, এ ভাষা আমার অহংকার।
এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মাস্টার সিরাজ ও নজরুল ইসলাম উজ্জ্বল যুগ্ম আহবায়ক বাড্ডা থানা আওয়ামী যুবলীগ আরো উপস্থিত ছিলেন মফিজুল ইসলাম মফিজ যুগ্ম আহবায়ক গুলশান থানা আওয়ামী যুবলীগ ও বাড্ডা থানার অন্তর্ভুক্ত আওয়ামী যুবলীগের সকল নেতৃবৃন্দ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.