Ultimate magazine theme for WordPress.

সুনামগঞ্জ জেলা হাসপাতালে প্রথম করোনা ভ্যাকসিন নিলেন সংসদ সদস্য,মুক্তিযোদ্ধা,জেলা ও উপজেলা চেয়ারম্যান।

0
৪৮ Views

উজ্জ্বল হাসান সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি
সুনামগঞ্জ জেলা হাসপাতালে প্রথম করোনা ভ্যাকসিনের টিকা নিলেনসুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মহিবুর রহমান মানিক,সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য এড. পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ,সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুরুল হুদা মুকুট,জেলা যুবলীগের আহবায়ক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খায়রুল হুদা চপল,সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত,বিএম এর সভাপতি ডা. আব্দুল হেমিক,বীরমুক্তিযোদ্ধা মালেক হোসেন পীর, সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. সৈকত দাসসহ সমাজের বিশিষ্ঠজনরা।

রবিবার সকাল ১০টায় করোনা ভাইরাসের টিকাগ্রহন করে জনপ্রতিনিধিরা এ কার্যক্রমের শুভ সূচনা করেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন,সুনামগঞ্জের জেল্ াপ্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন,সিভিল সার্জন ডা. মো. শামস উদ্দিন,পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান,সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইয়াসমিন নাহার রুমা,হাসপাতালের আর এম ও ডা. রফিকুল ইসলাম,পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর সুনামগঞ্জের উপ পরিচালক ডা. মোজাম্মেল হক,সহকারী পরিচালক ডা. ননী ভূষন তালুকদার, জেলা আওয়ামীলীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদবিষয়ক সম্পাদক সীতেশ তালুকদার মঞ্জু,তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক অমল কান্তি কর,উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এড. মো. আবুল হোসেন,জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক খন্দকার মঞ্জুর আহমদ,সদস্য সবুজ কান্তি দাস,নুরুল ইসলাম বজলু ,যুবলীগ নেতা পাভেল আহমদ,জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি দিপংঙ্কর কান্তি দে,রাজন মিয়া ও অমিয় মিত্র প্রমুখ।

আজ সকাল থেকে জেলা সদর হাসপাতালসহ ১১টি উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেকে করোনা ভ্যাকসিন প্রদানের সকল প্রকার কার্যক্রম শুরু হয়েছে তা চলবে বিকেল ৩টা পর্যন্ত। জেলা সদরের ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতলের নুতন ভবণের নীচ তলার বাম পাশের একটি কক্ষে শয্যা,চেয়ার টেবিলসহ প্রয়োজনীয় উপকরণ স্থাপন করে টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সদর হাসপাতালের ৮টি বুথে ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স গুলোতে তিন করে করোনা বুথ স্থাপন করা হয়েছে। জেলার ১১ টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩৩ টি বুথ ও সদর হাসপাতালের ১০ টি বুথে করোনা ভ্যাকসিন দেয়া চলছে। প্রতিটি বুথে একজন টিকাদান কর্মী দায়িত্বে একজন চিকিৎসক একজন সিনিয়র স্টাফ নার্স ও চারজন স্বেচ্ছাসেবক টিকা প্রদানকালীন সময়ে দায়িত্ব পালন করবেন। এছাড়া প্রতিটি টিকাদান কেন্দ্রে ২ জন টিকাদান কর্মী এবং চারজন করে স্বেচ্ছাসেবী নিয়োগ করা হয়েছে। জরুরী কোন সমস্যা দেখা দিলে কুইক রেসপন্স টিম সব রকমের দায়িত্ব পালন করবেন। প্রতিটি বুথে একটি অক্সিজেন সিলিন্ডার, অক্সিমিটার, পাল্স মিটার,ইনজেকশন কার্সন,বিপি সহ প্রয়োজনীয় মেডিকেল উপকরণ থাকবে। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ টিকা প্রদানের জন্য ডাক্তার, নার্স, আয়া, ব্রাদারসহ ফ্রন্ট লাইনাদের টিকা প্রদানের তালিকা প্রস্তুত করেছেন। এছাড়াও টিকা গ্রহণকারীদের সহযোগিতার জন্য এএফআই ম্যানেজমেন্ট সেন্টার স্থাপন করেছেন। সুরক্ষা অ্যাপস দিয়ে টিকা প্রদানকারীদের জন্য স্বাস্থ্য বিভাগের আইটি তৈরি করা হয়েছে। তারা সুরক্ষা অ্যাপসে রেজিস্ট্রেশনকারীদের সেবা প্রদান করবেন।

সুনামগঞ্জ -৫ আসনের সংসদ সদস্য মহিবুর রহমান মানিক জনগন থেকে বিছিন্ন একটি রাজনৈতিক দলের গুজবে ও অপপ্রচারে সাধারন মানুষজনকে কান না দেয়ার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, তিনি করোনা ভ্যাকসিন নেয়ার পর স্বস্থিবোধ করছেন। প্রধাœমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার দেখতে সার্বিক ক্ষেত্রে এগিয়ে নিতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। কিন্তু অপশক্তিরা দেশে এমন মেগা প্রকল্পের মাধ্যমেবড় বড় উন্নয়ন কাজগুলো বাস্তবায়ন হলেও তাদের নজরে আসেনা। অথচ দেশের জনগন এই সরকারের সুফল উপভোগ করছেন বলে দাবী করেন।

সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ¦ নুরুল হুদা মুকুট হাওরের জেলা সুনামগঞ্জের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের মাঝে প্রানঘাািত মহামারী করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রদানের জন্য তিনি প্রথমেই দলীয় সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জেলাবাসীর পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন,সরকার প্রধানের বিচক্ষনতার কারণে এই সরকারের আমলে বিশে^র তুলনায় বাংলাদেশে করোনার প্রকোপ বাড়তে পারেনি। মৃত্যুর হার কখনো বাড়েনি বরং এখন দিনি দিন কমতে শুরু করেছে। তিনি বিরোধী বিএনপির অপপপ্রচারে কান না দিয়ে সবাইকে নির্ভয়ে করোনা ভ্যাকসিনের টিকা গ্রহনের আহবান জানান। তিনি বলেন টিকা নিলে এই ভাইরাস থেকে একজন মানুষ যেমন নিরাপদে থাকবেন পাশাপাশি তার পরিবারের প্রতিটি সদস্যসহ সমাজের মানুষগুলো নিরাপদে থাকবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.