Ultimate magazine theme for WordPress.

“ধর্ষণ মামলায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নাইস কারাগারে

0
৩৭ Views

আলমগীর কলারোয়া প্রতিনিধিঃ কলারোয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত আসামি মেহেদী হাসান নাইসকে আদালতের নির্দেশে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মঙ্গলবার (০৮ সেপ্টেম্বর) সাতক্ষীরা জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করলে জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন বিজ্ঞ বিচারক বিলাপ মন্ডল। মেহেদী হাসান নাইস কলারোয়া উপজেলার পরানপুর গ্রামের শেখ মোশারফ হোসেনের ছেলে। মামলার বিষয়ে কলারোয়া থানার এসআই শারমিন শিখা বলেন, ‘বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে কলারোয়া থানায় নাইসের বিরুদ্ধে মামলা করে ভিকটিম। ওই মামলায় নাইস আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। আদালত জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন’। তিনি আরো বলেন, ‘ওই মামলায় অভিযুক্ত আসামির বিরুদ্ধে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। পরবর্তী দিনে রিমান্ড আবেদনের ব্যাপারে আদালতে শুনানি হবে’। উল্লেখ্য, প্রেমের সম্পর্ক করে ৪ বছর বছর ধরে কলারোয়ার এক স্কুল ছাত্রীকে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে মেহেদী হাসান নাইসের বিরুদ্ধে। ওই ঘটনায় স্কুল ছাত্রী বাদী হয়ে গত ১৮ আগস্ট নাইসকে আসামি করে কলারোয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এতদিন আত্মগোপনে থেকে মঙ্গলবার সে আদালতে আত্মসমর্পণ করে।
উল্লেখ্য, স্কুলছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘ চার বছর ধরে ধর্ষণের অভিযোগে সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ মেহেদী হাসান নাইচের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। গত (১৮ আগস্ট) ওই স্কুলছাত্রী বাদী হয়ে কলারোয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংশোধনী ২০০৩ এর ৯(১) ধারায় মামলাটি দায়ের করেন। মামলার এজাহারে বাদী অভিযোগ করেছেন, কলারোয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ মেহেদী হাসান নাইচ তার চাচাতো ভাইয়ের বন্ধু হওয়ার সুবাদে তাদের বাড়িতে যাতায়াত করতো। যাতায়াতের মধ্যদিয়েই তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নাইচ তার সাথে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এভাবেই কেটে যায় চার বছর। সর্বশেষ গত ৯ আগস্ট বিয়ের কথা বললে শেখ মেহেদী হাসান নাইচ তাকে বিয়ে করতে পারবে না মর্মে জানিয়ে দেয়। বাদী এ ঘটনায় শেখ মেহেদী হাসান নাইচের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।
এবিষয়ে জানতে চাইলে ঐ ছাত্রী সময় বার্তাকে জানাই, গত ৪ বছর ধরে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মেহেদী হাসান নাইসের সাথে আমার প্রেমের সম্পর্ক। বিয়ে করার প্রলোভনে সে আমাকে একাধিকবার ধর্ষন করে। সর্বশেষ গত ৩ জুলাই ২০২০ তার আমার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে। গত ৯ আগস্ট ২০২০ উক্ত ধর্ষক প্রেমিক আমাকে বিয়ে করবে না বলে হুমকি দেয়। এ ঘটনায় আমি বাদী হয়ে গত ১৮ আগস্ট ২০২০ কলারোয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করি। মামলা থেকে বাঁচতে সে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে মিথ্যা সংবাদ সম্মেলন করেছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.