Ultimate magazine theme for WordPress.

মাটিরাঙ্গায় অসহায় বিধবা মহিলার সরকারি বরাদ্দ বসত বাড়ির জন্য আবেদন।

0
৯৬ Views

 

মোঃ ফারুক হোসেন মাটিরাঙ্গা প্রতিনিধিঃ মাটিরাঙ্গা উপজেলাধীন বেলছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের ৪নং ওয়ার্ড ঢাকাইয়া পাড়া বাসী মোসাঃ মরিয়ম বেগম সরকারি বরাদ্দ বসত বাড়ির জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ২৯৮নং সাংসদ সদস্য বাবু কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি ও উপজেলা চেয়ারম্যানের কাছে আবেদন করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মোসাঃ মরিয়ম বেগম দীর্ঘদিন যাবৎ ঢাকাইয়া পাড়ায় বসবাস করে আসছেন, তাঁর ২০ শতক যায়গায় একটি ভাঙ্গা টিন সেট গড় এ(০৫)পাঁচজন সন্তান নিয়ে সে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। মরিয়ম বেগমের স্বামী অত্র এলাকায় মৃত্যু বরণ করেন,এই পরিবারে মরিয়ম বেগম ছাড়া রোজগার করার মতো অন্য কোনো ব্যক্তী নেই। মরিয়ম বেগমের বর্তমান বসবাসরত ঘরটি গত ০১(এক)বছর আগে ঘূর্ণিঝড়ে দুমড়ে মুচড়ে যায়, ঐ ঘরে বসবাস করার মতো পরিবেশ না থাকায় একই এলাকার নাসির উদ্দীন (ঈমাম) এর বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন বলে যানা যায়।

মরিয়ম বেগম জানান ,তাঁর ০৫(পাঁচ) জন সন্তান বিভিন্ন বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত আছে। তাঁর স্বামী গত ১১(এগারো) বছর আগে এই এলাকায় মৃত্যু বরণ করেছেন,বর্তমানে এই পরিবারে আমি ছাড়া রোজগার করার মতো আর কোনো ব্যক্তী নেই। ১৯৮৭ইং সালে শান্তিবাহিনী দ্বারা আমি সহ আমার পরিবারের (০৯)জন গুলিবিদ্ধ হয়ে (০৮)জন ঘটনাস্থলে মৃত্যু বরণ করে,শুধুমাত্র আমি প্রাণে বেচে যাই আমার শরীরের বিভিন্ন স্থানে (০৩)টি গুলিবিদ্ধ হয়।এখনো ঐ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ডাক্তার এর সরনাপন্ন হয়ে ঔষধ খেতে হয়।আমার বর্তমান বয়স ৫৩ বছর শারীরিক অক্ষমতার কারণে আয় রোজগার করার ক্ষমতা টুকু প্রায় হারিয়ে পেলেছি।এমন অবস্থায় আমার ০৫(পাঁচ) জন সন্তান বিভিন্ন বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত থাকায় তাদের নিয়মিত পড়ালেখার খরচ
সহ সকল ব্যয় বহন করতে ব্যর্থ অতি কষ্টে প্রায় অনাহারে- অর্ধাহারে দিনাতিপাত করতেছি। গত বছরের ঘূর্ণিঝড়ে আমার বসবাসরত ঘরটি ধুমড়ে মুচড়ে পরে যায়, ঐ ঘরে থাকার মতো কোনো পরিবেশ না থাকায় একই এলাকার নাসির উদ্দীন (ঈমাম) এর বাসায় আশ্রয় নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করিতেছি।আমার আবেদন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও এমপি সাহেবের মাধ্যমে উপজেলা চেয়ারম্যান এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার যেনো সরকারি বরাদ্দ থেকে আমাকে একটি বসত বাড়ি নির্মাণ করে দেয়া হয় তাহলে আমি অনেক উপকৃত হবো।

ঢাকাইয়া পাড়া সমাজবাসী মোঃ মাসুদ রানা বলেন, পাকা ঘরের খুবই প্রয়োজন ।মরিয়ম বেগম অসহায় ও বিধবা মহিলা তার ০৫ সন্তান নিয়ে অনেক কষ্টের জীবন যাপন করে আসছেন, সরকারি বরাদ্দ থেকে যদি একটি ঘর মরিয়ম বেগমকে দেয়া হয় তাহলে আমরা এলাকা বাসী খুশী হবো, কারণ মরিয়ম বেগম ঢাকাইয়া পাড়ার মধ্যে সবচাইতে গরীব ও অসহায়।

এ বিষয়ে মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম বলেন,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অঙ্গীকার গৃহহীন কেউ থাকবে না আর, এই অঙ্গীকারকে বাস্তবায়নের লক্ষে মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদ কাজ করে যাচ্ছে

মরিয়ম বেগম উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বরাবর একটি দরখাস্ত করেন সরকারি বরাদ্দ বসত বাড়ির জন্য ইতিমধ্যে মরিয়ম বেগমের বসত বাড়ির জন্য ইতিমধ্যে দরখাস্তে মাননীয় এমপি সাহেব সুপারিশ করেছেন।

 

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৃলা দেব এর সাথে কথা হয়েছে খুব শীগ্রই সরকারি বরাদ্দ থেকে তার বসত বাড়ি করে দেয়া হবে বলে জানান।

Leave A Reply

Your email address will not be published.